Ads

Desk

করোনায় বিপর্যস্ত জনগণ, সরকার মত্ত ভাস্কর্য বিলাসিতায়!

– হাসান রূহী

‘রোম যখন পুড়ছিল, নিরো তখন বাঁশি বাজাচ্ছিল।’ এটি একটি ঐতিহাসিক প্রবাদ। স্বৈরশাসকেরা যখন জনগণের বিক্ষোভ, প্রতিবাদ, দাবি উপেক্ষা করে কিংবা পুরোপুরি বাস্তবতা বিস্তারিত…

করোনা টিকাতেও দরবেশের থাবা!

  • Dec 22, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

শেয়ারবাজার লুট থেকে শুরু করে ব্যাংক লোপাট, কুরবানির চামড়া এমনকি বঙ্গবন্ধু বিস্তারিত…

সর্বনিম্ন রানের লজ্জার তালিকায় ভারতের রেকর্ড

  • Dec 20, 2020

অ্যাডিলেডে স্বপ্নের মতো দিন পার করল অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাঠে ভারতকে লজ্জায় ডুবিয়ে গোলাপি বলে জয়োৎসব করল টিম পেইনের দল। চার ম্যাচ সিরিজের একমাত্র দিবারাত্রির টেস্টে ভারতকে আট উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিকেরা। বিস্তারিত…

‘বৈবাহিক ধর্ষণ’ প্রচারকারীদের চপেটাঘাত!

  • Dec 18, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

এবার বাংলাদেশি প্রগতিশীলদের চপেটাঘাত করলো ভারতীয় হাইকোর্ট। শুধু বিবাহের পরে নয় বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয় বলে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছেন দিল্লির হাইকোর্ট। আদালত বলেন, একজন নারী যদি তার নিজের সম্মতিতে দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্ক অব্যাহত রাখেন তাহলে এটাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে ধর্ষণ বলা যাবে না। তবে এই রায় বৈবাহিক ধর্ষণ’ প্রচারকারীদের চপেটাঘাত হলেও অন্যায় হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

দেখাগেছে, বাংলাদেশের প্রগতিশীলরা বিবাহের পরে স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করাকে ‘বৈবাহিক ধর্ষণ’ বলে দাবি করে আসছেন। তাদের দাবি বিবাহিত নারীরা তাঁদের স্বামীর কাছ থেকে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়। যা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক।

তাদের এসব দাবিকে যেন পাত্তাই দিলেন না ভারতীয় হাইকোর্ট। টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, এক নারী তার মামলায় দাবি করেছিলেন, একজন পুরুষ তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এ প্রতিশ্রুতির কারণে তাদের মধ্যে মাসের পর মাস শারীরিক সম্পর্ক অব্যাহত ছিল। তিনি এটাকে ধর্ষণ বলে দাবি করেন। তবে জবাবে আদালত বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয় বলে রায় ঘোষনা করেন।

বিচারক বিভু বখরু বলেছেন, বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ককে অপরাধ হিসেবে তখনই ধরা হবে ভিকটিম যদি সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে মনে করেন। তবে কিছু ক্ষেত্রে বিয়ের প্রতিশ্রুতি হয়তো যৌন সম্পর্ক স্থাপনে উভয়কে সম্মত করাতে পারে। যদিও একই রকম মনে নাও করতে পারেন সংশ্লিষ্ট যুবক বা যুবতী।

তিনি আরও বলেন, এমন ক্ষেত্রে ওই শারীরিক সম্পর্কে উভয়ের মত আছে বলে ধরে নেওয়া হলেও, ওই যুবতীর মত ছিল না বলে মনে করা হয়। এমন ঘটনাকে ধর্ষণ হিসেবে ধরা হতে পারে। তবে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারার অধীনে এটা ধর্ষণের অপরাধ হবে।

কিন্তু যদি দুজনের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক অব্যাহত থাকে অথবা দীর্ঘ সময় তারা এমন সম্পর্ক চালিয়ে যান তাহলে সেটাকে দেখা হয় স্বেচ্ছায় সম্পর্ক স্থাপন হিসেবে। এর ফলে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে এর আগে ট্রায়াল কোর্ট খালাস দিয়েছিলেন। হাইকোর্টও তা সমুন্নত রাখেন। অর্থাৎ ওই যুবককে ধর্ষণের অভিযোগ থেকে খালাস দেন আদালত।

সম্প্রতি ‘ব্রেকআপ হলেই মেয়েরা বলে ধর্ষণ’ ভারতে নারী কমিশনের এমন বক্তব্য নিয়ে তুমুল সমালোচনার জন্ম নেয়। এক সাংবাদিক সম্মেলনে ছত্তীশগড়ের নারী কমিশনের প্রধান কিরন্ময়ী নায়েক বলেছিলেন, ‘বেশিরভাগ সময়ই মেয়েদের সম্মতিতেই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। লিভ-ইন সম্পর্কেও থাকে। তারপর সম্পর্ক ভেঙে গেলেও ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে মেয়েরা। নারী কমিশন এমন বহু গার্হস্থ্য সমস্যার সমাধান করে থাকে। আমরা অনেক সময় মেয়ে ও ছেলেদের বকাবকিও করি। কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে আমরা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করি।’ এ নিয়ে তুমুল সমালোচনার জন্ম নিলেও দিল্লির হাইকোর্টের রায় সব সমালোচনার জবাব স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

বিয়ের পরে নতুন করে প্রতিবার যৌন সম্পর্কের ক্ষেত্রে নারীর অনুমতি নিতে হবে এটা ভ্রান্ত ও মুর্খতাপ্রসূত বক্তব্য হিসেবে দেখছেন আলেম সমাজ। তারা বলছেন, বিয়েতে পুরুষের পক্ষ থেকে নারীকে ইজাব বা প্রস্তাব করার পর নারীর পক্ষ থেকে কবুল বলা হয় সেসময়ই নারীর উপর পুরুষের যৌন সম্পর্কের স্থায়ী সম্মতি আদায় হয়। এর প্রমাণ হিসেবে শুধু একা নারী নয় নারীর অভিভাবক ও প্রয়োজনীয় সংখ্যক সাক্ষীও রাখা হয় বিবাহে।

বিবাহে কবুল বলা বা সম্মতি প্রদানের পর একান্ত শারীরিক সমস্যা ছাড়া পুরুষের যৌন সম্পর্কের আগ্রহে সাড়া না দেয়ার সুযোগ থাকে না। ইসলামের বিধান অনুযায়ী পুরুষ এক্ষেত্রে স্ত্রীকে বাধ্য করতে পারে। পুরুষরা যে সবসময় বাধ্য করে এমনটাও না। এটা মূলত পারস্পরিকভাবেই ঘটে থাকে। এক্ষেত্রে গুরুতর কারণ ছাড়া স্ত্রী সম্মত না হলে ইসলামের বিধান অনুযায়ী পুরুষেরই বরং মামলা করার অধিকার আছে। স্ত্রী যদি তার স্বামীর এই চাওয়াকে অস্বীকার করে তাহলে আসলে তাদের মাঝে আর বিয়েই বহাল থাকে না।

এদিকে ভারতীয় হাইকোর্টের এই রায় বৈবাহিক ধর্ষণের দাবিকারীদের উচিৎ জবাব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, দেশব্যাপী ধর্ষণের মহামারি ও ধর্ষণরোধে কঠোর আইন পাশ হওয়ার প্রেক্ষিতে একটি ধর্মবিদ্বেষী মহল উঠে পড়ে লেগেছে স্বামীর ইচ্ছায় শারীরিক সম্পর্ককে জোরজবরদস্তি বা ধর্ষণ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে। বাংলাদেশের হাই কোর্ট এর দাবিতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়ার মত ন্যাক্কারজনক ঘটনাও ঘটেছে। বৈবাহিক ধর্ষণ যেমন যুুক্তিহীন তেমনি বিবাহের পূর্বে প্রেম ভালোবাসার নামে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলাও নিষিদ্ধ। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো যে, কোন ব্যাপারে দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমদের কোনো কথা বলতে দেখা যায়নি এমনকি এর প্রতিবাদও করেননি। অথচ এগুলো মারাত্মকভাবে একটি ইসলামীবিদ্বেষী ও সমাজবিধ্বংসী ব্যাপার।

উল্লেখ্য, এর আগেও শিক্ষিত ও প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের ক্ষেত্রে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সংসর্গকে ধর্ষণ হিসেবে গণ্য করা যাবে না বলে রায় ঘোষনা করে বম্বে হাইকোর্ট। ২০১৭ সালের ২৩ জানুয়ারি টিএনএনের খবরে বলা হয়, প্রেমিকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে এক নারী মামলা করেন। ২১ বছর বয়সী এক যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন তাঁর সাবেক প্রেমিকা। ওই প্রেমিকার অভিযোগ, যুবক তাঁকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এরপর তাঁরা একে অপরের ঘনিষ্ঠ হন। কিন্তু হঠাৎ তাঁদের সম্পর্কে চিড় ধরে। একপর্যায়ে ওই সম্পর্ক ভেঙে যায়। এরপরই প্রেমিকা ওই যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। এ নিয়ে মামলার রায়ে মুম্বাই হাইকোর্ট বলেন, শিক্ষিত ও প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের ক্ষেত্রে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সংসর্গকে ধর্ষণ হিসেবে গণ্য করা যাবে না।

আরও পড়ুন: বৈবাহিক ধর্ষণ বলে কিছু নেই

মামুনুল হককে জব্দ করতে সরকারি ইন্ধনে মিথ্যা মামলা

  • Dec 17, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

হেফাজতে ইসলামের সাবেক আমির আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর এতদিন পর এসে হত্যার অভিযোগে তুলে মামুনুল হকসহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বিস্তারিত…

নৈরাজ্যের মধ্য দিয়ে বিজয়ের ৫০ বছর উদযাপন

  • Dec 17, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

জাতীয় কোনো দিবস আসলে আওয়ামীলিগের কথিত বুদ্ধিজীবী থেকে শুরু করে তৃনমূল নেতাকর্মীরা চেতনার নামে নিজেদের মধ্যে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে থাকেন। মহান বিজয় দিবসেও দেখা গেছে সে চিত্র। বিস্তারিত…

সরকারি হস্তক্ষেপে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের অস্থিরতা

  • Dec 16, 2020

হঠাৎ করেই কোনো ঘোষণা না দিয়েছে ভেঙে দেয়া হয়েছে রিটায়ার্ড আর্মড ফোর্সেস অফিসার্স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন (রাওয়া) এর কার্য নির্বাহী পরিষদ। বিস্তারিত…

চেতনা নয় প্রতারণার ফাঁদে বিজয়ের ৫০ বছর

  • Dec 16, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

১৬ই ডিসেম্বর, মহান স্বাধীনতা বিজয় দিবস। পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্তির দিন এটি। বিস্তারিত…

এবার চামচ কেলেঙ্কারি

  • Dec 14, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

বালিশ ও পর্দা কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না কাটতেই এবার চামচ কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠেছে। বিস্তারিত…

রাজাকার পুত্রের শ্যালকের ‘রাজাকার তত্ত্ব’ আবিষ্কার!

  • Dec 14, 2020

আরফান মুজাহিদ

মিথ্যা তথ্য দিয়ে দেশবাসীকে বিনোদিত করতে দেশে এসেছেন বিখ্যাত তথ্যবাবা হিসেবে খ্যাত শেখ হাসিনার পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়। তিনি সব সময়ই মানুষকে বিনোদন দিতে খুব ভালবাসেন। বিস্তারিত…

জানাযা বন্ধ করতে গুজব ছড়াচ্ছে বাংলাট্রিবিউন

  • Dec 13, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন দেশের প্রাচীনতম ইসলাম বিস্তারিত…

সেই জাফরুল্লাহর ফাঁদে ভিপি নুরও!

  • Dec 13, 2020

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

বিরোধীমত দেখা দিলেই জুলুম নির্যাতন ছাড়াও বিভিন্নভাবে বশে আনার চেষ্টা করেন ক্ষমতাসীনরা। বিস্তারিত…